শেষ ওভারের নাটকীয়তায় মোস্তাফিজদের জয়

শেষ দুই ওভারে পাঞ্জাব কিংসের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল মাত্র ৮ রানের। কিন্তু সেটা করতেই ব্যর্থ হলেন মার্করাম-পুরানরা। মোস্তাফিজের ১৯তম ওভারের কারিশমায় খেলা গড়ায় শেষ ওভারে। সেখানে কার্তিক তিয়াগি মাত্র ১ রান দিয়ে তুলে নেন পাঞ্জাব কিংসের দুই উইকেট। ক্রিজে মারকুটে সব ব্যাটসম্যান থাকতেও ২ রানের নাটকীয় জয়ে মাতে মোস্তাফিজুরের রাজস্থান রয়্যালস। আর তাতেই তারা আশা জাগাচ্ছে সেরা চারে ওঠার।

গতকাল আইপিএলের বাকি অংশের খেলায় দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ৩২তম ম্যাচে নায়ক বনে যান রয়্যালসের বোলার কার্তিক তিয়াগি। আর তার দল পয়েন্ট টেবিলে উঠে ৫ নম্বর অবস্থানে। সমান পয়েন্ট নিয়ে তাদের ওপরে রয়েছে রোহিত শর্মার মুম্বাই।

চলমান আসরের দ্বিতীয়বারের দেখায় টস হেরে ব্যাটিংয়ে দারুণ শুরু পায় রাজস্থান। এভিন লুইস ও জসশ্বী জয়সওয়ালের ৫৪ রানের জুটি ভাঙ্গেন আর্সদ্বিপ সিং। শেষ পর্যন্ত ৩২ রান দিয়ে ৫ উইকেট তুলে রাজস্থানকে অল আউট করতে দারুণ ভূমিকা রাখেন পাঞ্জাবের এই বোলার। বাংলাদেশের সঙ্গে যুব বিশ্বকাপে হারা ভারত অনুর্ধ্ব-১৯ দলের সদস্য জসশ্বী ৩৬ বলে করেন ৪৯ রান। মাঝে লিয়াম লিভিংস্টোনের ১৭ বলে ২৫ এবং একই পরিমাণ বলে ৪ ছয় আর ২ চারে ৪৩ রানে বড় সংগ্রহ পায় মোস্তাফিজের দল। পাঞ্জাবের পেসার সামি নেন ২১ রান দিয়ে ৩ উইকেট।

স্লগ ওভারে দারুণ বোলিং করে দলকে ম্যাচে টিকিয়ে রানে মোস্তাফিজ। ছবি: আইপিএল।

রান তাড়ায় দারুণ শুরু পায় পাঞ্জাব। ১২০ রানের উদ্বোধনী জুটিতে ৩৩ বলে ৪৯ রান করে ফিরেন অধিনায়ক কেএল রাহুল। এরপর ৪৩ বলে ৬৭ রান করে তেওয়াটিতার শিকার হন মায়াঙ্ক। অবশ্য ম্যাচে দুর্দান্ত ছন্দেই জয়ের লক্ষ্যে এগোয় পাঞ্জাব।

শেষের দিকে ২ ওভারে মাত্র ৮ রানের প্রয়োজন পরলে রয়্যালসের অধিনায়ক বল তুলে দেন মোস্তাফিজুর রহমানের হাতে। অধিনায়কের মানও রাখেন এই টাইগার পেসার। মাত্র ৪ রান দিয়ে খেলা তখনও জমিয়ে রাখেন ফিজ। তবে শেষ ওভারে তাকে ছাপিয়ে যান আরেক পেসার কার্তিগ তিয়াগি। দলকে এনে দেন রোমাঞ্চকর ২ রানের জয়।

  • ঢাকাটাইমস থেকে