মিয়ানমারে নিহত তরুণীর শেষকৃত্যে রাজধানী নেপিদোতে মানুষের ঢল

মিয়ানমারে নিহত তরুণীর শেষকৃত্যে রাজধানী নেপিদোতে মানুষের ঢল
মিয়ানমারে নিহত তরুণীর শেষকৃত্যে রাজধানী নেপিদোতে মানুষের ঢল

নিউজথ্রি ::  মিয়ানমারে সামরিক শাসন বিরোধী বিক্ষোভে নিহত তরুণীর মরদেহে হাজারো মানুষ শ্রদ্ধা জানিয়েছে। সেনাদের ভয়ভীতি উপেক্ষা করে আজ নিহত মিয়া থিউ থিউ খাইং নামে কিশোরীর শেষকৃত্যে রাজধানী নেপিদোতে মানুষের ঢল নামে।

বার্তা সংস্থা  বিবিসির খবরে বলা হয়, চলতি মাসের শুরুর দিকে ২০তম জন্মদিনের আগেই মিয়া থিউ খাইংকে গুলি করা হয়। গত ১ ফেব্রুয়ারি সুচি সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর জান্তা বিরোধী বিক্ষোভে যে ৩ জন নিহত হয় তার মধ্যে ওই তরুণীই ছিল প্রথম।

বিবিসি জানায়, সামরিক জান্তা বিরোধী বিক্ষোভে নিহত মিয়া থিউ খাইং পেশায় সুপারমার্কেট কর্মী ছিলেন। সেনা অভুথানের পর চলতি মাসের শুরুতে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের সরাতে গুলি করলে থিউ খাইং মাথায় গুল্রবিদ্ধ হন । ১০দিন হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকার পর শুক্রবার  মারা যান তিনি। সেই থেকে

নিহত তরুণী খিয়াং জান্তা বিরোধী আন্দোলনের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। অভ্যুত্থান বিরোধী বিক্ষোভগুলোতে তার ছবি প্রদর্শনে করা হচ্ছে।

তার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আজ রোববার  রাস্তায় মানুষের ঢল নামে। কিছু মানুষ তাকে স্যালুট প্রদর্শন করে। মিয়ানমারের স্বৈরশাসন বিরোধী সেনাশাসনকে প্রত্যাখ্যান এবং গণতন্ত্র পুনরুজ্জীবনের প্রতীক হিসেবে এর আগে বিক্ষোভকারীরা তিন আঙুল প্রদর্শন করে বিক্ষোভও করেন।

 ২০২০ সালের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনে ব্যাপক ভোট কারচুপির অভিযোগ তুলে গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের সেনাবাহিনী সুচিকে ক্ষমতাচ্যুত করে দেশের ক্ষমতা গ্রহণ করে। এরপর সেনাবাহিনী নতুন নির্বাচন দিয়ে ক্ষমতা হস্তান্তরের আশ্বাস দেয়। যদিয় তা  প্রত্যাখান করে প্রতিবাদ ক্রছেন মিয়ানমারের মানুষ।