মামুনুলের কথিত স্ত্রী ঝর্ণার পিতা আ’লীগ থেকে বহিষ্কার

নিউজথ্রি ::  হেফাজত নেতা মামুনুল হকের কথিত দ্বিতীয় স্ত্রী জান্নাত আরা ঝর্ণার পিতা   ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গার   ওলিয়ার রহমানকে দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে গোপালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ।

গতকাল এ সিদ্ধান্ত হয়  ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ হলো-তার মেঝ মেয়ে জান্নাত আরা ঝর্ণার স্বামী মামুনুল হক উগ্রপন্থী ইসলামী সংগঠনের সঙ্গে জড়িত। আর তাঁ স্ত্রী জামায়াতপন্থী।

উল্লখ্য,  ঝর্ণার পিতা ওলিয়ার রহমান একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং সাবেক সেনা সদস্য। তিনি গোপালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য।

তাকে বহিষ্কারের পর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি আমিনুল ইসলামকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির  দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে  গোপালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মোনায়েম খান বলেন, ওলিয়ার রহমানকে কেন দল থেকে বহিষ্কার করা হবে না, তা জানতে চেয়ে ১২ এপ্রিল কারণদর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়। নোটিশে তাকে সাত দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়। ১৯ এপ্রিল ওই সাত দিন পার হয়। এই প্রেক্ষাপটে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নির্বাহী  কমিটির    সভায় ওলিয়ারকে দল থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

মোনায়েম খান বলেন, ওলিয়ার কখনো নিজের দল বাদ দিয়ে অন্য দলের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন নি। এমন  কোনো প্রমাণ আমরা পাইনি। কিন্তু তিনি সভাপতি থাকলে এবং তার পরিবারের সদস্যরা ভিন্ন আদর্শের হলে দলের গোপন তথ্য ফাঁস হয়ে যাওয়ার ভয় থাকে। এ জন্য তাকে দল থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া তার কারণদর্শানোর জবাবও দলের হাতে পৌঁছায়নি।কারণদর্শানোর নোটিশে বলা হয়, তার মেঝ মেয়ে জান্নাত আরা ঝর্ণার স্বামী মামুনুল হক উগ্রপন্থী ইসলামী সংগঠনের সঙ্গে জড়িত। আর তাঁ স্ত্রী জামায়াতপন্থী।

তবে মুঠোফোন ব্যবহার না করায় মো. ওলিয়ার রহমানের বক্তব্য জানা যায়নি। তবে তার স্ত্রী শিউলী বেগম অভিযোগ খন্ডন করে বলেন, আমরা আওয়ামী লীগ পরিবারের সদস্য। ওলিয়ার একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা। তাকে নিয়ে সন্দেহ করা উচিৎ নয়। #