ভারতে পালানোর সময় ধর্ষণের পর হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি :: অন্যের সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলার অভিযোগে সাতক্ষীরায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ
ও পরে হত্যা করে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় গোয়েন্দা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে কথিত প্রেমিক। দেবহাটায় দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ ও শ্বাসরোধে হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার একমাত্র আসামী ভিকটিমের কথিত প্রেমিক পার্থ মন্ডলকে (২১) গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। শনিবার রাতে সদর উপজেলার বৈকারী সীমান্ত থেকে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ হত্যায় ব্যবহৃত ইলেকট্রিক ক্যাবল ও বাইসাইকেল উদ্ধার করেছে। রবিবার দুপুরে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান প্রেস ব্রিফিং করে এ ঘটনার বর্ণনা দেন।
পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, দেবহাটা উপজেলার টিকেট গ্রামের দশম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছাত্রীকে বৃহস্পতিবার বিকেলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ শেষে গলায় ক্যাবল পেচিয়ে হত্যার কথা পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে
কথিত প্রেমিক একই গ্রামের প্যারা মেডিকেলে অধ্যয়নরত গ্রেপ্তারকৃত ছাত্র
পার্থ দাস।
শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশের একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার
করে পুলিশ। ওইদিন মেয়েটির বাবা শান্তি দাস দেবহাটা থানায় পার্থকে আসামী
করে থানায় মামলা করেন।
পুলিশ সুপার মোস্তাফিজ জানান, মেয়েটির সাথে অন্য একটি ছেলের সাথে সম্পর্কের কারণে তাকে হত্যা করেছে বলে পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের স্বীকার করেছে পার্থ।
এদিকে পূর্ণিমা ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত শাস্তির দাবিতে সকালে
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে বিভিন্ন নাগরিক সংগঠন। #