প্রেম করার সময় কোন বিষয় খেয়াল রাখবেন ?

প্রেম করার সময় কোন বিষয় খেয়াল রাখবেন ?
প্রেম করার সময় কোন বিষয় খেয়াল রাখবেন ?

আপনার প্রেমিকার সবকিছুই আপনার ভালো লাগে। তার পছন্দের কিছু করতে পারলে  আপনিও খুশি হন। তবে সময়ের ব্যবধানে এক সময় তাতে ভাটা পড়তে পারে। মলিন হয়ে যেতে পারে সম্পর্ক। এজন্য দীর্ঘ সম্পর্ক ধরে রাখতে প্রয়োজন সঠিক মানুষ বেছে নেয়া। আপনার প্রেমিকা  বা প্রেমিকা আপনার জন্য কতটা সঠিক তা নির্ণয়ে কয়েকটি লক্ষণ  দেখে নিন।

১. প্রত্যেক মানুষই একেক রকম, নিজের মতো করে আলাদা। ব্যক্তিত্বেও থাকে ভিন্নতা। তবে মনের মানুষ সেই হয়, যখন তার সাথে আপনার কিছুটা হলেও মনের মিল হয়। আপনার পছন্দের গান, অভ্যাস, ব্যক্তিত্ব, সিনেমা দেখা, ঘুরতে যাওয়া,  খাওয়া-দাওয়া এসব বিষয়ে কিছুটা হলেও মিল থাকতে হবে। তাই প্রেম করার সময় অবশ্যই এসব বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে । মনে রাখতে হবে, প্রেমিক-প্রেমিকা হওয়ার পূর্বে আপনাদের ভালো বন্ধু  হতে হবে।

২.  পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধা যে কোনো সম্পর্কেই খুবই জরুরী। একে অপরকে যেমন ভালোবাসতে হবে, ঠিক সেভাবে উভয়ের  কাজকে সম্মান করতে হবে। কীভাবে ভবিষ্যতে আরও উন্নতি করবেন সে বিষয়ে দুজনেরই ভাবনা চিন্তা এক হতে হবে।

৩. সুযোগ পেলেই একে অপরকে সারপাইজ দিন।  সেই সঙ্গে উভয়ের মধ্যে উদ্যোমের সৃষ্টি করুণ। একসঙ্গে ঘুরতে যান, একে অপরের কথাকে গুরুত্বসহকারে শুনুন।

৪. সম্পর্ক নিয়ে প্রেমিকা যদি খুব সিরিয়াস হয়, ত্বে সেটাকে দুর্বলতা না ভেবে তার মতামতকেও গুরুত্ব দিন। যেমন তিনি আপনাদের সম্পর্কের কথা যেমন ফলাও করে কাউকে জানাতে চান না সেই রকমই সম্পর্কে  ব্যব্ধান কীভাবে ্রাখবেন তা নিয়েও আলোচনা করুণ, যাতে ভুল বঝাবুঝি না হয়। আপনার আর তার স্বপ্ন নিয়ে কীভাবে সামনের দিকে আরও এগিয়ে চলবেন এই ব্যাপারেও আলোচনা করুণ।আপনার কোনো কিছু তার খারাপ লাগলে হজম না করে স্পষ্ট করে জানিয়ে দেয়ায় শ্রেয়।

৫. মানুষ হিসেবে কেউ কাউকে  বদলে ফেলতে পারে না। বরং জীবনে কে কীভাবে থাকবেন সেই সিদ্ধান্ত পুরোপুরি তারই। তবে এটাও ঠিক, একসাথে চলতে হলে কিছু বিষয়ে অবশ্যই একে অপরের প্রতি মানিয়ে চলতে হবে। আর তাই দুজনেরই দুজনের মান-সম্মানের কথা মাথায় রাখতে হবে। #