নড়াইলে মানহানী মামলায় জামিন পেলেন গয়েশ্বর রায়

আদালত

নড়াইল প্রতিনিধি ::  নড়াইলে দায়ের করা একটি মানহানী মামলায় জামিন পেলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। সোমবার (২৯মার্চ) সকালে নড়াইলের জেলা ও দায়রা জজ মুন্সী মোঃ মশিয়ার রহমানের আদালতে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পন করে জামিনের আবেদন করলে আদালত জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন। মামলাটি শুনানীর সময় আসামী পক্ষে ও রাষ্ট্রে পক্ষে একাধিক আইনজীবী অংশগ্রহন করেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৫ ডিসেম্বর বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ঢাকায় তার দলের এক আলোচনা সভায় শহীদ বুদ্ধিজীবিদের সর্ম্পকে বলেন, ”তারা নির্বোধের মত মারা গেল, আমাদের মত নির্বোধরা প্রতিদিন শহীদ বুদ্ধিজীবী হিসাবে ফুল দেয়, না গেলে আবার পাপ হয়”। উনারা যদি এত বুদ্ধিমান হন, তাহলে ১৪ তারিখ পর্যন্ত ঘরে থাকেন কী করে? তার এই বক্তব্য বিভিন্ন সংবাপত্র ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ায় প্রচার হয়। মামলার বাদী নড়াইলের কালিয়া থানার যাদবপুর গ্রামের শেখ আশিক বিল্লাহ নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগ অফিসে বসে এ খবরটি পড়ে মারাত্মক ভাবে ক্ষুব্ধ হন। পরে শেখ আশিক বিল্লাহ বাদী হয়ে ২৯ ডিসেম্বর (২০১৫) দুপুরে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের বিরুদ্ধে নড়াইল সদর আমলী আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলাটি আমলে গ্রহন করে আদালত প্রথমে সমন এবং পরে এ বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারী আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারী করলে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় গত ২৪ ফ্রেরুয়ারী মহামান্য হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করলে হাইকোর্ট নড়াইল জেলা ও দায়রা জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করতে আদেশ দেন।
জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মুন্সী মোঃ মশিয়ার রহমান উভয় পক্ষের আইনজীবীদের বক্তব্য শুনানী অন্তে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে ১০হাজার টাকার বন্ডে জামিন মঞ্জুর করেন।#