দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিয়েও করোনায় আক্রান্ত স্বামী স্ত্রী

নিউজথ্রি ::  করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ অ্যাসোসিয়েশনের (বিপিএমসিএ) সভাপতি এমএ মুবিন খান ও তার স্ত্রী মিসেস শারমিন মেহজামিন। করোনার পাশাপাশি মুবিন খান ডেঙ্গুতেও আক্রান্ত হয়েছেন। তবে তার স্ত্রীর ডেঙ্গু হয়নি।

মুবিন খান ৭ ফেব্রুয়ারি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গেই প্রথম ডোজের টিকা নেন। পরে তিনি দ্বিতীয় ডোজের টিকাও নেন।

বর্তমানে এই দম্পতি জাপান ইস্ট ওয়েস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন বলে জানা গেছে। সেখানে ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ও খ্যাতনামা মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. টিটু মিয়ার পরামর্শে তাদের চিকিৎসা চলছে।

সংগঠনের পক্ষ থেকে দেয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এম এ মুবিন খান গত বছর মার্চে দেশে করোনার সংক্রমণ শুরুর পর থেকে প্রথম বেসরকারি খাতের উদ্যোক্তা সব বেসরকারি হাসপাতালের দ্বারে দ্বারে গিয়ে করোনা চিকিৎসায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। সবাইকে সুসংগঠিত করার চেষ্টা করেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী সার্বক্ষণিক পরামর্শে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় করোনা রোগীদের চিকিৎসার সুযোগ সৃষ্টি করেন। পরবর্তী সময়ে করোনা মোকাবেলার জন্য ওই সময় ১৩টি বেসরকারি হাসপাতালকে কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালে রূপান্তরিত করে সার্বক্ষণিক চিকিৎসা দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়।

বর্তমানে বেসরকারি সেক্টরে ১৮টি ডেডিকেটেড হাসপাতালে বেড সংখ্যা তিন হাজারে উন্নীত করা হয়েছে। প্রায় ৬০০টি আইসিইউ, ৬০০টি এইচডিইউ এবং ৭০০টির মতো হাইফ্লো নাজাল ক্যানোলা এবং প্রায় ৬৬ট্টি ভেন্টিলেটর দিয়ে করোনা চিকিৎসা চালানো হচ্ছে।

এজন্য শুরু থেকে কাজ করেছেন মুবিন খানের নেতৃত্বে বিপিএমসিএ’র বর্তমান কমিটি।

বিপিএমসিএ’র নির্বাহী পরিচালক মতিউর রহমান জানান, চিকিৎসাধীন এম এ মুবিন খানের সার্বিক খোঁজখবর রাখছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, পররাষ্ট্র মন্ত্রী আব্দুল মোমেন, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক স্বাস্থ্য বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী নিলুফা আহমেদ ও স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ আলী নূর ও স্বাস্থ্য সেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবিএম খুরশিদ আলম।

সুস্থতার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন বেসরকারি হাসপাতাল মালিকদের সংগঠনের সভাপতি এমএ মুবিন খান। #