চৌগাছায় স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন!

নিজস্ব প্রতিবেদক, চৌগাছা (যশোর) :: চৌগাছায় স্বামীর হাতে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার দিবাগত রাতে পৌরসভার মাঠপাড়া মহল্লায় এই ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে যশোর মর্গে পাঠিয়েছে। একই সাথে হত্যার সাথে জড়িত স্বামী ও শাশুড়ীকে গ্রেফতার করেছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে হত্যার ঘটনা বলে ধারনা করছে এলাকার মাানুষ।

পুলিশ ও এলাকাবাসি সূত্রে জানা গেছে, চৌগাছা পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের মাঠপাড়ার বাসিন্দা হাসানুর রহমানের ছেলে ইমরান হোসেন জুয়েলের সাথে বছরখানেক আগে যশোর সদরের রুপদিয়ার দিয়াপাড়া গ্রামের ইলিয়াস হোসেনের মেয়ে আয়শা খাতুনের (১৮) বিয়ে হয়। বিয়ের পর হতেই কারণে অকারণে স্ত্রীর উপর অমানবিক নির্যাতন করতো স্বামী ইমরান হোসেন।
স্থানীয়রা জানান, ইমরান হোসেন জুয়েল হাফেজিয়া মাদ্রাসায় লেখাপড়া করেছে। মাদ্রাসায় পড়া সময় থেকে নানা অপকর্মের সাথে জড়িত ছিল সে। তার স্বভাব চরিত্র ছিল খুবই প্রশ্নবিদ্ধ। এজন্য মাদ্রাসা লাইনে তার কোথাও চাকুরী হয়নি। এমতাবস্থায় সে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হয়। বিয়ের পর স্থানীয় ডিভাইন গার্মেন্টেসে চাকুরী নেয়। ধারণা করা হচ্ছে রবিবার দিবাগত রাতে স্ত্রীর সাথে এমনই এক ঘটনা নিয়ে বিরোধের সৃষ্টি হয় একপর্যায় স্ত্রীকে স্বাসরোধ করে হত্যা করে।
গার্মেন্টেসের এক সহপাঠি জানান, জুয়েল ধর্মের লাইনে পড়ালেখা করেছে বলে সে তাকে জানিয়েছে। কিন্তু সে বেশখানিকটা বদমেজাজি ছিল। তার সাথে আমাদের মতের মিল হতনা।

থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম জানান, রবিবার দিনগত রাত ৩টার দিকে পুলিশের কাছে খবর আসে মাঠপাড়ায় একটি বাড়ীতে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে দ্রুত আমরা ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে আয়শা খাতুন নামের এক গৃহবধুকে মৃত অবস্থায় আমরা উদ্ধার করি। হত্যার সাথে জড়িত স্বামী ইমরান হোসেন জুয়েল ও নিহতের শাশুড়ী বিলকিচ খাতুনকে আটক করা হয়। সোমবার সকালে লাশ ময়না তদন্তের জন্য যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন আছে। তবে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। #