চৌগাছায় বোরো ধানে ইঁদুরের উৎপাত : ফলন বিপর্যয়ের শংকায় কৃষক

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি :: যশোরের চৌগাছায় চলতি মৌসুমে মাঠের পর মাঠ বোরো ধান ইঁদুরে কেটে সাবাড় করে দিচ্ছি বলে খবর পাওয়া গেছে। ধানে থোড় আসার সাথে সাথে ইঁদুরের উৎপাত শুরু হয় যা এখনও চলমান আছে। কোন কিছুতেই ইঁদুরকে থামনো যাচ্ছে না, ফলে ধানের ফলন নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় রয়েছেন ভুক্তভোগী কৃষকরা।
চৌগাছা উপজেলায় ১১টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভাতে এ বছর রেকর্ড পরিমান বোরো ধানের চাষ হয়েছে। ধান রোপনের পর হতে এ পর্যন্ত কোন বৃষ্টিপাত না হলেও আবহাওয়া কৃষকের অনুকুলে থাকায় বাম্পার ফলনের আশায় কৃষক বুক বেঁধেছে। কিন্তু কৃষকের সেই স্বপ্ন দুঃস্বপ্নে পরিনত করেছে ইঁদুর। অধিকাংশ এলাকায় বোরো ধানের জমিতে ইঁদুরের উৎপাত বেড়ে চরম ভাবে বেড়ে গেছে। দলবদ্ধ ইঁদুর ধান ক্ষেতের মাঝে যেয়ে থোড় আসা দান কেটে ফেলছে। কৃষকরা ইঁদুর নিধোনে নানা ধরনের ফাঁদ পেতেও কোন কাজ হচ্ছে না। প্রতি দিনই ধান কেটে নষ্ট করায় কাংখিত ফলন নিয়ে মহাদুঃশ্চিন্তায় ভুক্তভোগীরা।
গতকাল আন্দারকোটা, হাজরাখানা, স্বরুপদাহ, খড়িঞ্চা নওদাপাড়া, বাজেখড়িঞ্চা সহ বেশ কিছু মাঠে যেয়ে দেখা যায় কৃষক ইঁদুরের কবল হতে ধান রক্ষায় নানা ধরনের কাজে ব্যস্ত। এ সময় কথা হয় খড়িঞ্চা নওদাপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুর রহমান বিশ্বাসের ছেলে কৃষক শফি উদ্দিনের সাথে। তিনি বলেন, প্রতি রাতেই ইঁদুর ধান কেটে নষ্ট করছে। নানা ধরনের পদক্ষেপ নিয়েও কোন কাজে আসছে না। এ বছর তিনি অনেক কষ্টে ২ বিঘা জমিতে সুভললতা ধানের চাষ করেছেন। এখন ধানে শীষ বের হওয়া শুরু করেছে কিন্তু গত ৪/৫ দিন ধরে ইঁদুরে ধান কেটে চরম ভাবে নষ্ট করে দিচ্ছে। সব ধরনের কায়দা কানুন করেও ইঁদুর থেকে ধান রক্ষা করা যাচ্ছে না। ওই মাঠে কৃষক জালাল উদ্দিন ৩ বিঘা, রমজান আলী ৩ বিঘা, হাশেম আলী ২ বিঘা, গোলাম বিশ্বাস ৪ বিঘা, মশিয়ার রহমান ২৫ কাটা, আব্দুল্লাহ আল মামুন ৪ বিঘা, মুক্তর আলী ২ বিঘা, আকবর আলী ২ বিঘা, আতিয়ার রহমান ৩ বিঘা, মিজানুর রহমান ২ বিঘাসহ অধিকাংশ কৃষকের জমির ধান ইঁদুরে কেটে নষ্ট করেছে।
ভুক্তভোগী কৃষকরা জানান, বিলের মাঝখানে জমি সেখানেও ইঁদুরে ধান কাটছে। জমির আইলে বা উঁচু কোথাও ইঁদুরের গর্ত বা ইঁদুর থাকার কোন জায়গা না থাকলেও জমির মাঝখানে যেয়ে তারা ধান কাটছে। এখন অধিকাংশ জমির ধানে থোড় এসেছে। এই সময় ধানের গাছ নরম ও মিষ্টি হয় সে কারনে ইঁদুর ধান গাছ কেটে নরম অংশ খেয়ে ফেলছে।
কৃষক শফিউদ্দিন জানান, ইঁদুরের কবল হতে ধান রক্ষায় গ্যাস ট্যাবলেট ও মাছ ভাজি করে ইঁদুর মারা ওষুধ মিশিয়ে জমিতে রেখে আসলেও তা খাচ্ছে না। রাত এলেই নির্বিচারে ধান কেটে যাচ্ছে।
এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রইচউদ্দিন বলেন, উপজেলার বিভিন্ন এলাকা হতে এ ধরনের খবর আমাদের কাছে আসছে। সংশ্লিষ্ঠ এলাকার ফিল্ড অফিসাররা কৃষকদের সাথে কথা বলছেন। তবে ইঁদুর বুদ্ধি সম্পন্ন একটি প্রাণী। দীর্ঘ মেয়াদী পদ্ধতি অবলম্বন করে সকলের প্রচেষ্টায় ইঁদুর নিধোন করতে হবে। বর্তমানে ধান ক্ষেতে পলেথিন বেঁধে ও ওষুধ দিয়ে ইঁদুরের কবল থেকে ধানকে রক্ষায় কৃষকদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। #