কেশবপুরে বাল্য বিবাহ ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে সভা অনুষ্ঠিত

কেশবপুর (যশোর ) প্রতিনিধি :: দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে কর্মরত মানবাধিকার সংগঠন পরিত্রাণ, কেশবপুর শাখার আয়োজনে দাতা সহযোগী সুইডিস ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট কো-অপারেশন এজেন্সি-সিডা এর অর্থায়নে ও প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এর কারিগরী সহযোগীতায় পরিত্রাণ এর ট্রেনিং রুমে স্থানীয় সিভিল সোসাইটির সংগঠনের প্রতিনিধিদের নিয়ে শিশু এবং নারীদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ব্যাপারে বৃহস্পতিবার বিকালে ত্রৈমাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। ত্রৈমাসিক সমন্বয় সভায় সভাপতিত্ব করেন কপোতাক্ষ মহিলা উন্নয়ন সংস্থার সভানেত্রী ও সিএসও কমিটির সভাপতি সুফিয়া পারভিন।
ত্রৈ-মাসিক সমন্বয় সভায় উপস্থিত ছিলেন কেশবপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপিত এস আর সাঈদ, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি নওশাদ আলম, বিবেকানন্দ শিক্ষা এবং সংস্কৃতি পরিষদ কেশবপুর উপজেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক কুন্তল বিশ^াস, খেলাঘর এর সভাপতি আব্দুল মজিদ, ওয়ার্ড এর সংস্থার সাজু , ভগ্নী নিবেদিতা মঞ্চের নির্বাহী পরিচালক রতœা চন্দ্র, উদয়ন নারী উন্য়ন সংস্থার সভানেত্রী উমা দে, জীবিকা নারী উন্নয়ন সংস্থার পরিচালক সাবেক কাউন্সিলর মনিরা খানম, সুবোধমিত্র অটিজম এবং প্রতিবন্ধি বিদ্যালয়ের শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম, নক্ষত্র নারী উন্নয়ন সংস্থার পরিচালক সাবিনা ইয়াসমিন, প্রতিজ্ঞা নারী উন্ন্য়ন সংস্থার সভানেত্রী সবুরেন্নাসা, সমাধানের কর্মসুচি সমন্বয়ক মোঃ মুনসুর আলী, ভলেনটিয়ার মিনা প্রমুখ। সভাটি সঞ্চালনা করেন পরিত্রাণ ওয়াই মুভস্ প্রকল্পের প্রজেক্ট অফিসার উজ্জ্বল কুমার দাস।
সভায় গত ৩ মাসের কার্যক্রম এর অগ্রগতি সম্পর্কে উপস্থিত সকলকে অবহিত করেন প্রজেক্ট অফিসার উজ্জ্বল কুমার দাস। কাজের অগ্রগতির মধ্যে ওয়াই মুভস্ প্রকল্পের কর্মসুচির আওতায় স্বাস্থ্য অধিকার (এসআরএইচআর) যৌন, লিঙ্গ ভিত্তিক সহিংসতা ও বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ সম্পর্কে দলিত গ্রামীন নারীদের সচেতনতার ব্যাপারে সীমাবদ্ধতা, শিক্ষণীয় দিক এবং অর্জন সমুহ সবার সামনে তুলে ধরেন। আগন্তুক প্রতিনিধিদের স্ব-স্ব সংগঠনের শিশু এবং নারীর অধিকার বিষয়ে কি কি কর্মসুচি বাস্তবায়ন করছে সেটাও তুলে ধরে সিভিল সোসাইটি অর্গানাইজেশন (সিএসও) প্রতিনিধিরা কেশবপুরে শিশু এবং নারীদের সর্বোত্তম স্বার্থ-রক্ষায় কাজ করবেন বলে অঙ্গিকারাবদ্ধ হন এবং “ তারুন্যের জয়ধব্বনি ” ওয়েবসাইটে সকল সংস্থার কার্যক্রমও তুলে ধরবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন। বিশেষ করে সিভিল সোসাইটি অর্গানাইজেশন (সিএসও) প্রতিনিধিরা আগামী ৩ মাসের কর্ম পরিকল্পনার মধ্যে শিশু ও নারীর প্রতি কোন ধরনের সহিংসতা হলে প্রতিরোধ, আইনি সহায়তা ও স্মারক লিপি প্রদান, উপজেলা পরিবার পরিকলপনা প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার (এসআরএইচআর) বিষয়ে কিশোর/ কিশোরীদের অংশগ্রহনমুলক কর্মসুচি গ্রহনের উদ্বুদ্ধ করা, শিশু বিবাহ প্রতিরোধ এবং শিশু নির্যাতনকে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক জিরো টলারেন্স ঘোষনা করার মতো জনগুরুত্বপূর্ন পরিকলপনা গ্রহন করেন। #