আলমগীরকে নিয়ে অপপ্রচারে ক্ষুব্ধ রুনা লায়লা

নিউজথ্রি ::    চলচ্চিত্রের নন্দিত অভিনেতা ও নির্মাতা আলমগীরের মৃত্যুর গুজব রটনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানালেন তার স্ত্রী উপমহাদেশের কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লা। সোমবার রাতে হোয়াটস অ্যাপে ঢাকা টাইমসকে পাঠানো এক বার্তায় তিনি এ কথা জানান।

রুনা লায়লা বলেন, ‘কিছু ব্যক্তি প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে আলমগীর সাহেবের সম্পর্কে এমন ভিত্তিহীন ও মিথ্যা সংবাদ প্রচার করেছে। এতে আমরা হতবাক হয়েছি। কী উদ্দেশে এমন একটি খারাপ খবর ছড়ানো হলো বুঝতে পারছি না। শুধমাত্র অসুস্থ ও বিকৃত মানসিকতার মানুষরাই এমন কাজ করতে পারে।’

গায়িকা জানান, ‘ফেসবুক ও ইউটিউবে যারা এই ধরনের গুজব ছড়িয়েছে, আমরা তাদের একটি তালিকা তৈরি করেছি। ইতোমধ্যে পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগকে বিষয়টি জানানোও হয়েছে। শিগগিরই আমরা তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেব।’

বন্ধু, অনুরাগী ‍ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের ধন্যবাদ জানিয়ে রুনা লায়লা আরও বলেন, ‘আলমগীর সাহেব একেবারে সুস্থ আছেন, মাশাআল্লাহ। তিনি রাজধানীর গ্রিন লাইফ হাসপাতালের ভর্তি আছেন। সেখানে চিকিত্সক, নার্স এবং স্টাফদের একটি দল তাকে সেরা চিকিৎসাটা দিচ্ছেন। ভালো যত্নও করছেন।’

পাশাপাশি এ ধরনের গুজব বিশ্বাস না করার জন্য তিনি সবাইকে অনুরোধও জানিয়েছেন। এছাড়া নায়ক আলমগীর সুস্থ হয়ে শিগগিরই বাসায় ফিরবেন বলেও তিনি উল্লেখ করেছেন।

গত ১৭ এপ্রিল সকালে রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজিজেস অ্যান্ড ইউরোলজি হাসপাতালে গিয়ে আলমগীর, রুনা লায়লা ও তাঁদের মেয়ে আঁখি আলমগীরসহ মোট ১২ জন একসঙ্গে করোনার টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেন। তার আগের দিন থেকে খুসখুসে কাশি ছিল নায়ক আলমগীরের।

এরপর টিকা গ্রহণের দিনে মোহাম্মদপুরের আসাদ অ্যাভিনিউয়ের বাড়িতে করোনা টেস্টের জন্য নমুনা দেন তারকা দম্পতি আলমগীর-রুনা লায়লা। পরের দিন আসে রিপোর্ট। আলমগীরের পজিটিভ এবং রুনা লায়লার নেগেটিভ। ওইদিন বিকালেই গ্রিন লাইফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় আলমগীরকে। এখনো তিনি সেখানে চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন। #